আসছে পাকিস্তানি বিনিয়োগ, ঢাকায় আসছেন ইমরান খান

ঢাকায় আসতে পারেন পারেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। আগামী মে মাসে অনুষ্ঠিতব্য ৮ মুসলিম রাষ্ট্রের জোট ডি-৮ এর শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে তিনি বাংলাদেশে আসতেন পারেন।

৩০ এবং ৩১ মে ঢাকায় দুদিনের ওই সম্মেলন আয়োজনের প্রস্তাব করা হয়েছে। শীর্ষ সম্মেলনের আয়োজক হিসেবে ঢাকা ডি-৮ সেক্রেটারিয়েটের সঙ্গে পরামর্শক্রমে প্রস্তাবিত তারিখে সদস্য রাষ্ট্রের শীর্ষ নেতৃত্বের ব্যস্ততা বা আপত্তি আছে কি-না, তা জানতে চেয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর মতামত জানতে ইসলামাবাদস্থ বাংলাদেশ মিশনের মাধ্যমে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়েও চিঠি দেওয়া হয়েছে। 

করাচিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের উপ-হাই কমিশনার নুর-ই হেলাল সাইফুর রহমান জানিয়েছেন, ঢাকায় ডি-৮ শীর্ষ সম্মেলনে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী আমন্ত্রিত। ইমরান খান সেই সম্মেলনে অংশ নেবেন এবং এই সফরের মধ্যদিয়ে দুই দেশের সম্পর্ক এগিয়ে যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। 

গত সপ্তাহে একটি সেমিনারের বরাতে পাকিস্তানের এক্সপ্রেস ট্রিবিউন জানিয়েছে, বাংলাদেশে পাকিস্তানের বড় বিনিয়োগ আসছে। বাংলাদেশে যে ১০০ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হচ্ছে তাতে পাকিস্তানের ওই বিনিয়োগ আসবে। এই বিনিয়োগ এতটাই আকর্ষণীয় যে পাকিস্তানের গণমাধ্যমে এটাকে ‘ঐতিহাসিক’ বলে আখ্যায়িত করেছে। 

ট্রিবিউন রিপোর্টে বলেছে, অনুষ্ঠানে হাই কমিশনারও আশা করেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের আসন্ন ঢাকা সফর দুই দেশের রাজনৈতিক সম্পর্ক উন্নয়ন তথা সার্বিকভাবে ঘনিষ্ঠতায় গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হবে। 

উল্লেখ্য প্রায় ২০ বছর পর বাংলাদেশ উন্নয়নশীল বৃহৎ আট মুসলিম রাষ্ট্রের অর্থনৈতিক সহযোগিতা বিষয়ক জোট ডেভেলপিং-এইট বা ডি-৮ এর শীর্ষ সম্মেলন আয়োজন করতে যাচ্ছে। ১৯৯৭ সালে ইস্তাম্বুলে তুরস্ক, মিশর, ইন্দোনেশিয়া, ইরান, নাইজেরিয়া, পাকিস্তান, মালয়েশিয়া এবং বাংলাদেশকে নিয়ে গঠিত ওই জোটের দ্বিতীয় সম্মেলন ১৯৯৯ সালে ঢাকায় হয়েছিল। অল্টারনেটিভ ভেন্যুতে দু'বছর অন্তর অনুষ্ঠিত শীর্ষ সম্মলেনটির এবারের আয়োজক ঢাকা। আয়োজনটি সফল করার মধ্যদিয়ে আগামী দু'বছরের জন্য ডি-৮ এর চেয়ারম্যানশিপ গ্রহণ করবে বাংলাদেশ।