মৃত্যু ২০০ ছাড়ালো, ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত আরও ৭০৯ জন

দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ২০৬ জনে দাঁড়ালো। গত ২৪ ঘণ্টায় ৭০৯ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। ফলে দেশে এখন করোনা আক্রান্তের মোট সংখ্যা বেড়ে ১৩ হাজার ১৩৪ জন হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৯১ জন। মোট সুস্থ এখন ২ হাজার ১০১ জন।

শুক্রবার (৮ মে) করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সরকারের জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) এর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নিয়মিত বুলেটিনে সংযুক্ত হয়ে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

তিনি জানান, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৫ হাজার ৭০৭টি, পরীক্ষা করা হয়েছে ৫ হাজার ৯৪১টি। ৩৫টি ল্যাবরেটরিতে এসব নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। নতুন করে যুক্ত হয়েছে নারায়গঞ্জের ৩০০ শয্যাবিশিষ্ট হসপিটালের ল্যাব।’

ডা. সুলতানা বলেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় যে ১৯১ জন সুস্থ হয়েছেন তাদের মধ্যে বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা যায়, সর্বাধিক সুস্থ হয়েছে রাজশাহী বিভাগের হসপিটালগুলোতে ৪৭ জন, চট্টগ্রামে বিভাগের হসপিটালগুলো থেকে ২৩ জন ও ঢাকা বিভাগের হসপিটালগুলো থেকে ২২ জন, খুলনা ডিভিশন থেকে ১০ জন, শেখ রাসের গ্যাস্টোলিভার হসপিটাল থেকে ১৪ জন এবং ঢাকা সিটি করপোরেশনের আওতায় যেসব হসপিটাল আছে সেখানে কুয়েত মৈত্রী হসপিটাল থেকে ১৫ জন, কুর্মিটোলা হসপিটাল থেকে ১৫ জন, রিজেন্ট হসপিটাল থেকে ২ জন, সাজেদা ফাউন্ডেশন নারায়ণগঞ্জ থেকে ৮ জন। এছাড়া রাজারবাগ পুলিশ লাইন হসপিটাল থেকে ১৮ জন সুস্থ হয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় যে ৭ জন মারা গেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ৫ জন এবং মহিলা ২ জন। তাদের মধ্যে নব্বই বছরের উপরে বয়সী ১ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছর বয়সী ২ জন, ৬১ থেকে ৭০ বয়সী ২ জন এবং ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী ২১ জন।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যুর খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদফতর। এরপর ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। বিশেষত এপ্রিলের মাঝামাঝির পর থেকে প্রতিদিন ব্যাপক হারে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পায়।