পুরুষ ওয়ার্ডে অন্তর্বাসের ওপর পিপিই পরলেন নার্স

পুরুষ ওয়ার্ডে অন্তর্বাসের ওপর পিপিই পরলেন নার্সকরোনা প্রভাবে বিশ্ববাসী দিশেহারা। এই ভাইরাস মোকাবিলায় বিশ্ব নেতারা টালমালা। দিন যতো গড়াচ্ছে আতঙ্ক ততো বাড়ছে। তার চেয়েও বেশি ভয়ের কারণ হয়ে গেছে বিভিন্ন কল্পবাস্তব (মিথ)। কোথাও কোথাও করোনা থেকে বাঁচতে গোমূত্র পান করছেন। কোনও কোনও দেশের মানুষ করোনা রুখতে অতিরিক্ত মদপানে আলোচনায় এসেছে। এবার ব্যতিক্রম আলোচনায় আসলেন হাসপাতালের একজন নার্স।

রাশিয়ার তুলা শহরের একটি হাসপাতালের পুরুষ ওয়ার্ডে অন্তর্বাসের ওপর স্বচ্ছ পার্সোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট(পিপিই) পরায় এক নার্সকে শাস্তি দেয়া হয়েছে। ওই নার্স হাসপাতালে করোনা রোগীদের সেবায় নিয়োজিত ছিলেন।

সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়, তুলা শহরের হাসপাতালের একজন রোগী অন্তর্বাসের ওপর পিপিই পরা অবস্থায় ২০ বছর বয়সী ওই নার্সের ছবি তুলে। সেই ছবিটি পরে বিভিন্ন মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

এ ঘটনায় ওই নার্স জানায়, অতিরিক্ত গরমের কারণে তিনি অন্তর্বাসের ওপর আর কিছু পরেননি। তবে তিনি দাবি করেছেন যে ওই পিপিই পরার পরেও যে অন্তর্বাস বাইরে থেকে দেখা যাবে তিনি তা বুঝতে পারেননি।

এদিকে এমন কাণ্ডের পর ওই নার্সকে শাস্তি দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। হাসপাতাল প্রধান জানায় , প্রয়োজনীয় মেডিক্যাল পোশাক না পরায় তাকে শাস্তি দেয়া হয়েছে। স্থানীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ওই নারী নার্সের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।