২৪ ঘণ্টায় পুলিশে আক্রান্ত ১৬২, মোট ১৭৫৬

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ১৬২ জন পুলিশ সদস্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সব মিলিয়ে পুলিশে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭৫৬ জনে; যা গত শনিবার ছিল ১ হাজার ৫০৯ ও রবিবার ছিল ১ হাজার ৫৯৪ জন। কোয়ারেন্টাইনে থাকা পুলিশের সংখ্যাও প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে। করোনাযুদ্ধে এ পর্যন্ত মারা গেছেন সাত পুলিশ সদস্য।

আক্রান্তদের মধ্যে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সদস্যই ৮১০ জন। রবিবার এই সংখ্যা ছিল ৭৪৫ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মাঠ পর্যায়ের কনস্টেবলদের সংখ্যাই বেশি।

সোমবার (১১ মে) ডিএমপি জানায়, করোনায় মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তা ছাড়াও তাদের দুজন অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) ও একজন সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) পদমর্যাদার কর্মকর্তা আক্রান্ত হয়েছেন। সারাদেশে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে আরও ১ হাজার ১০৩ জনকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। আক্রান্তদের সংস্পর্শে আসায় কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে ৪ হাজার ৮০৩ জনকে। এ পর্যন্ত ১৬৫ জন পুলিশ সদস্য সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

পুলিশ সদর দফতর সূত্রে জানা গেছে, আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদের নির্দেশে করোনা আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের সুচিকিৎসা নিশ্চিতকল্পে কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

২৫০ শয্যাবিশিষ্ট বেসরকারি ইমপালস হাসপাতাল আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। ইতোমধ্যে সেখানে চিকিৎসা শুরু হয়েছে। মগবাজার এলাকার আরও একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশের চিকিৎসার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে। ছয়টি বিভাগীয় শহরে হাসপাতাল ভাড়া করে সেখানেও প্রয়োজনীয় সুবিধা যুক্ত করা হচ্ছে।

আক্রান্ত সদস্যদের সার্বিক কল্যাণ নিশ্চিত করতে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছেন আইজিপি। পাশাপাশি তিনি ব্যক্তিগতভাবে ইউনিট কমান্ডারদের সাথে কথা বলছেন। করোনায় আক্রান্ত চিকিৎসাধীন সদস্যদের খোঁজখবর নিতে উচ্চতর পর্যায়ের কর্মকর্তাদের দ্বারা মনিটরিং কমিটিও করেছে পুলিশ।