সিএমপি’র এক পুলিশ সদস্যের করোনা জয়

চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসকে পরাজিত করে হাসপাতাল ছাড়লেন সিএমপির এক পুলিশ সদস্য। পর পর দুইদফা নমুনা পরীক্ষায় রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সদস্য অরুণ চাকমাকে। 

রবিবার (৩ মে) দুপুর ১২টার দিকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে দামপাড়া পুলিশ লাইনে ফিরেন সিএমপির এই সদস্য। অরুণ চাকমা সিএমপির ট্রাফিক বিভাগের উত্তর জোনে কনস্টেলবল পদে কর্মরত। তিনি ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া জেলার বাসিন্দা। 

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. জামাল মোস্তফা জানান, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন চট্টগ্রামে প্রথম করোনা আক্রান্ত পুলিশ সদস্য। চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুই দফা পরীক্ষা করে তার শরীরে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) নেগেটিভ ফলাফল আসে। তাই রবিবার দুপুরে তাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়। আগামী ১৪ দিন তাকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়েছে। 

এর আগে গত ১২ এপ্রিল থেকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে তিনি চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন অরুন। 

এদিকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের এ সদস্য সুস্থ হয়ে দামপাড়া পুলিশ লাইনে ফিরে গেলে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান সিএমপি কমিশনার মাহবুবুর রহমান। এর আগে আন্দরকিল্লা জেনারেল হাসপাতাল থেকে ছাত্রপত্র পাবার পর তাকে ফুল দিয়ে বরণ করেন, পুলিশ সদস্যরা।

সিএমপির ট্রাফিক বিভাগের উপ-কমিশনার মো. শহিদুল্লাহ বলেন, করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত হয়ে পুলিশ সদস্য অরুণ চাকমা সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে কর্মস্থলে ফিরেছে। করোনা দুর্যোগের মধ্যে এটি সিএমপির জন্য প্রথম একটি সুখবর।

উল্লেখ গত কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রায় প্রতিদিন খবর ছিল সিএমপির কোন না কোন সদস্যের করোনা আক্রান্তের খবর। যাদের অধিকাংশই ট্রাফিক বিভাগের। ঠিক এমন অবস্থায় এই এক সদস্য করোনা জয় করে ফেরার খবরে সিএমপিতে ছিল আনন্দ ও স্বস্থি।

চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত সিএমপির ১৩ জন সদস্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।