২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুতে রেকর্ড ভাঙলো বাংলাদেশ

দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা একদিনে রেকর্ড সংখ্যক মৃত্যু। এর মধ্যে ৮ জন পুরুষ ও ৫ জন নারী রয়েছেন। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ১৯৯ জনে দাঁড়ালো। 

বৃহস্পতিবার (৭ মে) বিকেলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ৬ জন ঢাকায়, ঢাকার বাইরে ঢাকা বিভাগে ৩ জন ও চট্টগ্রামে ৪ জন রয়েছেন।

মৃতদের মধ্যে ৬ জনের বয়স ষাটোর্ধ্ব, ৪ জন ৫০ থেকে ৬০ বছর বয়সী, ২ জন ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী।  অপরজনের বয়স ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে, যিনি ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন। 

এদিন দুপুরে সরকারের জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) এর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নিয়মিত বুলেটিনে  স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে ৭৯৬ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। যা গতকালের চেয়ে ৮৬ জন কম। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত বেড়ে হয়েছে ১২ হাজার ৪২৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৩০ জন, এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হলেন ১ হাজার ৯১০ জন।

ডা. সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ৮৬৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, এখন পর্যন্ত মোট পরীক্ষা হয়েছে ১ লাখ ৫ হাজার ৫১৩টি নমুনা।

এর আগে দেশে একদিনে করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড ছিল গত ২০ এপ্রিল ১০ জন, ২১ এপ্রিল ১০ জন ও ২২ এপ্রিল ৯ জন।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যুর খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদফতর। এরপর ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। বিশেষত এপ্রিলের মাঝামাঝির পর থেকে প্রতিদিন ব্যাপক হারে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পায়।