করোনাভাইরাস: বাংলাদেশে নতুন ৩০৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত, মারা গেছে ৯ জন

বাংলাদেশে নতুন করে ৩০৯ জনের মধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। বাংলাদেশে এনিয়ে মোট শনাক্ত হওয়া কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ৪,৯৯৮ জন।
তবে দৈনিক সংবাদ ব্রিফিংয়ের সময় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা জানান গতকাল (২৪শে এপ্রিল) শুক্রবার কয়েকটি বেসরকারি পিসিআর ল্যাবরেটরি বন্ধ থাকায় সেসব প্রতিষ্ঠানে নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি এবং আইইডিসিআরের কাছে সেসব পরীক্ষার রিপোর্টও আসেনি।
গত ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন ৯ জন। এনিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা ১৪০।
মারা যাওয়াদের মধ্যে ৫ জন নারী ও ৪ জন পুরুষ।
নতুন করে মারা যাওয়া ৯ জনের বয়সই পঞ্চাশের ওপর।
নতুন করে মারা যাওয়াদের মধ্যে ৩ জন ঢাকার বাসিন্দা।
গত ২৪ ঘন্টায় ৩,৩৩৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে বলে জানান আইইডিসিআরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক।
বাংলাদেশে এনিয়ে মোট ৪৩ হাজার ১১৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।
নাসিমা সুলতানা জানান, বাংলাদেশে গতকাল পর্যন্ত ২১টি প্রতিষ্ঠানে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছিল। আজ থেকে (২৫শে এপ্রিল) আরো দু'টি প্রতিষ্ঠানে নমুনা পরীক্ষা শুরু করা হবে।
এ সপ্তাহের মধ্যে সারাদেশের ২৮টি পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষা করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।
লকডাউনের মধ্যে মানসিক স্বাস্থ্যের দিকে নজর রাখার পাশাপাশি রমজান মাসের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে ভিটামিন সি এবং জিঙ্কসমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।
গত ২৪ ঘণ্টায় ভোলা ও নাটোর জেলায় নতুন করে করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হওয়ার তথ্য জানান নাসিমা সুলতানা।
তিনি জানান বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত চারটি জেলায় করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়নি। সেগুলো হলো খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, ঝিনাইদহ ও সাতক্ষীরা।
শুক্রবার (২৪শে এপ্রিল) প্রথমবারের মত বাংলাদেশে একদিনে ৫০০ জনের বেশি করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়।
শুক্রবার নিয়মিত ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা রোজার মাসে মসজিদে নামাজ আদায় করার ক্ষেত্রে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলার ওপর জোর দেন।
নাসিমা সুলতানা সতর্ক করে বলেন, রমজানে স্বাস্থ্য বিধি না মানলে ভয়াবহ পরিণতি অপেক্ষা করছে।