বিশ্বকাপ নয় সমস্যার মূলে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ

বিশ্বকাপ নয় দ্বিপাক্ষিক এক সিরিজের কারণেই জাভেদ ওমর বেলিমকে বাংলাদেশ জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের ম্যানেজার পদ থেকে দূরে সরিয়ে রাখতে বলেছে ক্রিকেটের বিশ্বসংস্থা আইসিসি। অনুসন্ধানে এ তথ্য জানা গেছে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।
যদিও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এ ধরনের কোনো চিঠি আসেনি আইসিসি থেকে। প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন, মিডিয়ার কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস গতকাল এমনটাই জানিয়েছেন।
জাভেদ নিজেও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তবে গতকাল সন্ধ্যায় যোগাযোগ করা হলে এই বিষয়ে কথা বলতে অস্বীকৃতি জানান জাভেদ। বিসিবি থেকে কথা বলতে নিষেধ করা হয়েছে তাকে। তবে এ নিষেধাজ্ঞার আগে তিনি গণমাধ্যমের কারো কারো সঙ্গে কথা বলেছিলেন। সেখানে তিনি বলেন, এ প্রসঙ্গে বিসিবির বক্তব্যের ওপরই নির্ভর করছেন তিনি। কারণ তার মতে, বিসিবির কথায় স্পষ্ট এটি ভিত্তিহীন অভিযোগ।
ভারতীয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ক্রিকবাজ এ প্রকাশিত রিপোর্টে অভিযোগটি তোলা হয়। সেখানে উল্লেখ করা হয়, সাবেক এই ক্রিকেটারকে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের ম্যানেজার পদ থেকে দূরে সরিয়ে রাখতে বলেছে আইসিসি। কারণ হিসেবে বলা হয়, চলতি বছরের শুরুতে নারী বিশ্বকাপ চলাকালে তিনি নারী দলের তথ্য পাচার করেছেন। এ বিষয়ে আইসিসি চিঠি দেয় বিসিবিকে।
তবে বিসিবির বিশ্বস্ত সূত্রে গতকাল মঙ্গলবার জানা গেছে, জাভেদ ওমরকে নারী দল থেকে দূরে সরিয়ে রাখতে একটি চিঠি ঠিকই এসেছে তাদের কাছে। তবে সেটি বিশ্বকাপে তার কর্মকাণ্ডের জন্য নয়। বাংলাদেশ নারী দলের দ্বিপাক্ষিক সিরিজে ম্যানেজার হিসেবে জাভেদের ভূমিকাই এই চিঠির মূল কারণ।
বিসিবি সূত্রটি জানায়, ‘একটি চিঠি আসছে আইসিসি থেকে। তবে সেটা বিশ্বকাপের না, আগের সিরিজ নিয়ে। আইসিসি নাকি বলছে তাকে যেন আর দলের সঙ্গে যুক্ত করা না হয়।’ তবে সূত্র নিশ্চিত করেছে, জাভেদের বিরুদ্ধে দলের কারো সঙ্গে অশোভন আচরণ, কাউকে হেনস্তা করার অভিযোগ নেই।
বিশ্বকাপের আগে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ও পাকিস্তান সফরে সালমা-জাহানারাদের ম্যানেজারের দায়িত্বে ছিলেন জাভেদ। অবশ্য নারী দলের ম্যানেজার হিসেবে গত মার্চ পর্যন্তই বিসিবির সঙ্গে তার চুক্তি ছিল।
আইসিসির নির্দেশনা অনুযায়ী ভবিষ্যতে নারী দলের সঙ্গে ম্যানেজার পদে আর দেখা যাবে না ৪৩ বছর বয়সি এই সাবেক ক্রিকেটারকে। এমনকি আইসিসির কোনো ইভেন্টে বাংলাদেশের কোনো দলের দায়িত্বে রাখা হবে না জাভেদকে। এ বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিচ্ছে বিসিবি।
অস্ট্রেলিয়ায় বিশ্বকাপ চলাকালে নারী দলের সঙ্গেই ছিলেন উইমেন্স উইংয়ের চেয়ারম্যান শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। জাভেদকে নিয়ে আইসিসির চিঠি সম্পর্কে জানতে চাইলে গতকাল বিসিবির এই পরিচালক বলেন, ‘আমি এ ধরনের চিঠি পাইনি। আমি দেখিওনি। এ ধরনের কোনো অভিযোগ আমার কাছে আসেনি।’ বাংলাদেশের হয়ে ৪০টি টেস্ট, ৫৯টি ওয়ানডে খেলেছেন সাবেক ওপেনার জাভেদ। টেস্টে একটি সেঞ্চুরিও রয়েছে ডান হাতি এই ওপেনারের।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।