যেসব ফিচার থাকছে সাইবার ট্রাকে

ইলন মাস্ক এর গাড়ি নির্মাণ প্রতিষ্ঠান Tesla তার নতুন গাড়ি সাইবার ট্রাক বের করার ঘোষণা দিয়েছে। দেখতে বিদঘুটে হলেও এই গাড়ি মাত্র দুইদিনে প্রি-অর্ডারে বিশ্বরেকর্ড করে ফেলেছে। অনেকেই প্রটোটাইপ গাড়ি নির্মাণ করলেও বাণিজ্যকভাবে উৎপাদনের ঘোষণা আগে কেউ দেয়নি। সাইবার ট্রাক ২০২২ সালে মানুষের হাতে হাতে চলে আসবে। আমরা এখন পঞ্চম প্রজন্মের প্রথম ভাগে আছি, আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের গাড়িগুলো এমনই হবে। দাম বাংলাদেশী মাত্র ৪০ লাখ টাকা থেকে শুরু হওয়া এই গাড়িতে ফিচারের অভাব নেই। এই গাড়ি বিদ্যুৎ দিয়ে চলে, তাই চার্জ দিতে হয়। ফিচার আর ফাংশন দেখে মনে হচ্ছে এই গাড়ি বাংলাদেশের রাস্তায় চালানোর জন্যেই বানানো হয়েছে। আসুন দেখে আসি সাইবার ট্রাকে কি কি ফিচার থাকছে?



# ১ ঘণ্টার চার্জে এই গাড়ি যেতে পারবেন ৮০০ কিলোমিটার ( এক চার্জে ঢাকা-চট্টগ্রাম আপডাউন)

# ১৬ ইঞ্চি গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স আছে ( সহজেই এই গাড়ির নিচ দিয়ে কুকুর হেটে চলে যেতে পারবে)

# এই গাড়িতে কোন লুকিং গ্লাস নাই তাই লুকিং গ্লাস চুরি হওয়ার ভয় নাই, লুকিং গ্লাসের বদলে ব্যবহার করা হয়েছে ক্যামেরা।

# ০-৬০ কিলোমিটার উঠবে ২.৯ সেকেন্ডে যা পোর্শে 911 থেকেও বেশী ( মানুষ খালি দেখে থাকবে আর আপনি চলে যাবেন, মোবাইল বের করে ভিডিও করার আগেই আপনি গায়েব তাই ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা নাই)

# বডি হচ্ছে বুলেটপ্রুফ এবং স্ক্রেচপ্রুফ (বাংলাদেশে রিকশা, ট্যক্সি, বাইক,শহর এলাকার বাস আপনাকে মেরে দিলেও কোন সমস্যা নাই)

# এটাতে কলিউশান কন্ট্রোল সেন্সর থাকায় সামনে হঠাৎ কোনকিছু চলে আসলেও গাড়ি এক্সিডেন্ট হবে না

# অফরোড গাড়ি হওয়ায় যে কোন সময় বৃষ্টি হলে ঢাকা বা চট্টগ্রামে রাস্তায় পানি জমে গেলেও আপনি রাজার মত পানিতে গাড়ি চালিয়ে চলে যেতে পারবেন।

# বিক্ষোভ মিছিলের সময় বড় ইট মারলেও এই গাড়ির গ্লাস একেবারে ভেঙে যাবে না।

# এই গাড়ির নিরাপত্তা ব্যবস্থা আইডি পাসওয়ার্ড দ্বারা সুরক্ষিত তাই গাড়ি আপনার থেকে ডাকাতি করে নিয়ে গেলেও কোন লাভ নাই।