কাজলের জীবনে লক্ষ্যে নেই এবং খুবই খারাপ অভিনেত্রী: শাহরুখ

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় জুটি হল শাহরুখ খান ও কাজল। এক সময়ে পর্দায় এই জুটির রোম্যান্স দেখার জন্য সিনেমা হল নিমেশে হাউসফুল করতেন দর্শকরা। তাদের রসায়ন ছিলই এমন। কিন্তু প্রথম সাক্ষাতে কাজলকে মোটেই পছন্দ হয়নি বাদশাহ শাহরুখের।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, প্রথম দেখায় কাজলের অভিনয়, পেশাদারিত্ব নিয়ে ঠিক আত্মবিশ্বাসী ছিলেন না শাহরুখ। এমনকী, এই নিয়ে আমির খানকে তিনি সাবধানও করেছিলেন। বলেছিলেন কাজলের জীবনে লক্ষ্যের অভাব রয়েছে এবং খুবই খারাপ অভিনেত্রী।

সাক্ষাৎকারে কিং খান বলেছেন, বাজিগরে যখন আমি কাজলের সঙ্গে কাজ করছি, তখন আমির ওর সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতার ব্যাপারে আমায় জিজ্ঞাসা করেছিল। আমি তাকে একটা মেসেজ করে বলেছিলাম, খুবই খারাপ। তার কোনও লক্ষ্য নেই। তুমি তার সঙ্গে কাজ করতে পারবে না।

কিন্তু কিছুক্ষণের মধ্যে ধারণা বদল হয়ে যায় শাহরুখের। কাজলের একটি দৃশ্য অনস্ক্রিন দেখেই আমিরকে ফোন করেন তিনি। ফোন করে বলেন, আমি জানি না কী বলব! কিন্তু পর্দায় অসাধারণ সে।

তবে শুধু শাহরুখ নয়। কাজলেরও প্রথম দেখায় মোটেই আজকের কিং খানকে ভালো লাগেনি। তিনি বলছেন, আমার মনে আছে শাহরুখ ও অন্যান্য অভিনেতারা ছবির সেটে ছিল। আর আমি তার মেক আপ আর্টিস্টের সঙ্গে মারাঠিতে বকবক করে যাচ্ছিলাম। আমার গলা শুনে ওরা ভাবছিল, এ আবার কী! শাহরুখ খুব গম্ভীর ছিল। কিন্তু আমি তো কথাই বলে চলেছিলাম। অবশেষে ও বলল, তুমি দয়া করে চুপ করবে…চুপ করে যাও। আমার মনে হয় এভাবেই আমাদের বন্ধুত্ব হয়েছিল।

শাহরুখ বলছেন, এখনও আমায় কাজলকে এভাবেই চুপ বলতে হয়। কাজল টেকনিকার অভিনেতা নয়। ও একজন সৎ অভিনেতা। আর এটাই তার সবচেয়ে বড় গুণ। আমার মেয়ে অভিনেত্রী হতে চায়। এই গুণটা কাজলের থেকে ও শিখুক, আমি চাই।

বাজিগর সফল হওয়ার পরে আরও বহু ছবিতে অভিনয় করেছেন শাহরুখ ও কাজল। দিলওয়ালে দুলহনিয়া লে জায়েঙ্গে ছবি এর মধ্যে ঐতিহাসিক। এ ছাড়াও কুছ কুছ হোতা হ্যায়, কাভি খুশি কাভি গাম ছবিতেও মুগ্ধ করেছিল নব্বই দশকের এই জুটি। 

আজও সেই রসায়নের বিকল্প খুঁজে পাওয়া কঠিন। এর পরে আবার তাদের একসঙ্গে দেখা গিয়েছে মাই নেম ইজ খান, দিলওয়ালে-তে।